আত্নীয়তার বন্ধন

0
142
আত্নীয়তার বন্ধন সম্পর্কে
২২১. রাসূলুল্লাহ (সাঃ) বলেছেন- তাওরাতে লেখা আছে, যে লোক এটা পছন্দ করে যে, তার দীর্ঘায়ু হোক এবং তার রিযিক বৃদ্ধি পাক সে যেন আত্নীয়তার বন্ধন অটুট রাখে।”

তিবরানী এ হাদীসটি হযরত ইবনে আব্বাস (রা) থেকে সংগ্রহ করেছেন।

২২২. রাসূলুল্লাহ (সাঃ) বলেছেন- মহান ও পরাক্রমশালী আল্লাহ বলেছেন, “আমি রহমান, আমি রেহম সৃষ্টি করেছি এবং ওর নাম আমার নাম থেকে বের করেছি। এতএব, যে লোক তাকে মিলিত করে আমি তার সাথে একত্রিত হব আর যে তা কেটে ফেলে, আমিও তাকে কেটে ফেলব, আর যে তা ছিন্ন করে, আমিও তা ছিন্ন করব।”

আহমদ ও বুখারী এ হাদীসটি আব্দুর রহমান ইবনে আওফ (রা) থেকে সংগ্রহ করেছেন।

২২৩. রাসূলুল্লাহ (সাঃ) বলেছেন- রেহম রেহমানেরই একটি শাখা। সুমহান আল্লাহ্‌ বলেছেন, “যে লোক তোমাকে একত্রিত করে আমিও তাকে একত্রিত করব, আর যে তোমাকে কেটে ফেলে আমিও তাকে কেটে ফেলব।”

বুখারী এ হাদীসটি হযরত আয়েশা (রা) থেকে সংগ্রহ করেছেন।

২২৪. রাসূলুল্লাহ (সাঃ) বলেছেন- সুমহান আল্লাহ্‌ পৃথিবী ও আসমানসমূহ সৃষ্টি করার আগে উম্মুল বা মূল কিতাবে লিখে রেখেছিলেন, “নিশ্চয় আমি রহমানুর রহীম, আমি রেহম (সম্পর্ক) সৃষ্টি করেছি এবং এর জন্য আমার নাম থেকে নাম করণ করেছি। এতএব, যে লোক তা সংযুক্ত করে, আমিও তাকে আমার (নিজের সাথে) সম্পৃক্ত করব, আর যে তা বিচ্ছিন্ন করে, আমিও তাকে বিছিন্ন করব।”

তিবরানী এ হাদীসটি হযরত জাবীর (রা) থেকে সংগ্রহ করেছেন।